ঢাকা ০৯:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সীমান্ত হত্যা বন্ধ না হলে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করা হবে : হানিফ বাংলাদেশী

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ০১:১৭:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই ২০২১
  • 44

অবিলম্বে সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ কর্তৃক নিরীহ বাংলাদেশী নাগরিকদের নির্মম ভাবে গুলি করে হত্যা বন্ধ না হলে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করার হুশিয়ারি দিয়েছেন হানিফ বাংলাদেশী। আজ ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে হানিফ বাংলাদেশ বলেন, “গত ১২ জুলাই সাতক্ষীরা সীমান্তে ও ১৪ জুলাই লালমনিরহাট সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে দুইজন নিরীহ বাংলাদেশী যুবক প্রাণ হারিয়েছে। এই ন্যাক্কারজনক হত্যার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার থাবায় লাখ লাখ মানুষের প্রাণহানি দেখে যেখানে মানবতা জাগ্রত হওয়ার কথা সেখানে বিএসএফ হায়েনার মত নিরস্ত্র নিরীহ বাংলাদেশীদের পাখির মত গুলি করে হত্যা করছে। বাংলাদেশ সরকার আর বিজিবির নিরবতায় বিএসএফ এই উগ্র আচরণ ও বর্বরতা চালিয়ে যাচ্ছে। সরকারকে ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে ভারত সরকারকে কাছে প্রতিবাদ জানাতে হবে। অন্যথায় দেশের জনগণের জীবন রক্ষায় দেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসাবে জনগণকে সাথে নিয়ে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করা হবে।”

তিনি আরো বলেন, “২০২০ সালের ১১ সেপ্টম্বর থেকে ৩০ সেপ্টম্বর সীমান্ত হত্যাবন্ধের দাবিতে কুড়িগ্রামের অনন্তপুর সীমান্ত অভিমুখে প্রতিকী লাশ নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছি। গত কয়েক মাস সীমান্ত হত্যা কমলেও এখন আবার নারকীয় হত্যাকান্ড ভারত শুরু করেছে। আমরা আশাকরি ভারত প্রতিবেশীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে সীমান্ত হত্যাবন্ধ করবেন।”

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

সীমান্ত হত্যা বন্ধ না হলে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করা হবে : হানিফ বাংলাদেশী

প্রকাশিত: ০১:১৭:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই ২০২১

অবিলম্বে সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ কর্তৃক নিরীহ বাংলাদেশী নাগরিকদের নির্মম ভাবে গুলি করে হত্যা বন্ধ না হলে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করার হুশিয়ারি দিয়েছেন হানিফ বাংলাদেশী। আজ ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞপ্তিতে হানিফ বাংলাদেশ বলেন, “গত ১২ জুলাই সাতক্ষীরা সীমান্তে ও ১৪ জুলাই লালমনিরহাট সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে দুইজন নিরীহ বাংলাদেশী যুবক প্রাণ হারিয়েছে। এই ন্যাক্কারজনক হত্যার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার থাবায় লাখ লাখ মানুষের প্রাণহানি দেখে যেখানে মানবতা জাগ্রত হওয়ার কথা সেখানে বিএসএফ হায়েনার মত নিরস্ত্র নিরীহ বাংলাদেশীদের পাখির মত গুলি করে হত্যা করছে। বাংলাদেশ সরকার আর বিজিবির নিরবতায় বিএসএফ এই উগ্র আচরণ ও বর্বরতা চালিয়ে যাচ্ছে। সরকারকে ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে ভারত সরকারকে কাছে প্রতিবাদ জানাতে হবে। অন্যথায় দেশের জনগণের জীবন রক্ষায় দেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসাবে জনগণকে সাথে নিয়ে ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করা হবে।”

তিনি আরো বলেন, “২০২০ সালের ১১ সেপ্টম্বর থেকে ৩০ সেপ্টম্বর সীমান্ত হত্যাবন্ধের দাবিতে কুড়িগ্রামের অনন্তপুর সীমান্ত অভিমুখে প্রতিকী লাশ নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছি। গত কয়েক মাস সীমান্ত হত্যা কমলেও এখন আবার নারকীয় হত্যাকান্ড ভারত শুরু করেছে। আমরা আশাকরি ভারত প্রতিবেশীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে সীমান্ত হত্যাবন্ধ করবেন।”