ঢাকা ০৯:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাসপাতালের আইসিইউতে বিনা মূল্যে মনিটর ও মাস্ক দিলেন সুলতান আহমেদ মৃধা

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ১০:৫১:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১
  • 44

মাসুদ রানা: করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালের নতুন তৈরি আইসিইউতে মনিটর ও মাস্ক দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি, সাবেক উপজেলা ও পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ মৃধা।

শনিবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আব্দুল মতিনের কাছে তিনি পাঁচটি মনিটর ও আইসিইউতে ব্যবহারের ৫০ বাক্স হাইফ্লো অক্সিজেন মাস্ক হস্তান্তর করেন। এই আইসিইউ সামগ্রী ব্যক্তিগত তহবিল থেকে বিতরণ করেছেন তিনি।
চিকিৎসা সামগ্রী হস্তান্তর অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, ‘সরকারের পাশাপাশি সংকট মোকাবিলায় স্বাস্থ্য বিভাগের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বেসরকারি ও ব্যক্তি উদ্যোগে সহযোগিতা করায় সুলতান আহমেদ মৃধাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ তিনি সমাজের বিত্তবানদের করোনা রোগীদের চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন জাহাঙ্গীর আলম শিপন, সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক লোকমান হাকিম, পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ।
এর আগেও সুলতান আহমেদ মৃধা করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ব্যক্তি উদ্যোগে দুমকি ও মির্জাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনটি ভেন্টিলেটর, চারটি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, পিপিই, গ্লাভস, ক্যাপ, ডিজিটাল থার্মোমিটারসহ সিলিন্ডার বেসড সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট স্থাপন করেছেন।
এর আগে গত ৬ মে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বেচ্ছা রক্তদাতা সংগঠন সন্ধানী ইউনিটের কাজকে আরও বেগবান করার জন্য একটি ফ্রিজ দিয়েছেন তিনি। এছাড়া করোনা মহামারি শুরুর পর থেকেই নিয়মিত অসহায়-দুস্থ মানুষের মাঝে খাদ্য ও ঈদসামগ্রী বিতরণ করে আসছেন এই সমাজসেবক।
এসব সামাজিক কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ মৃধা বলেন, করোনা মহামারি শুরুর পর আমার মনে খুব তাগাদা অনুভব করি যে মানুষকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবেই আমি এই কাজে এগিয়ে এসেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন আমরা যেন যার যার জায়গা থেকে করোনা মহামারি মোকাবেলায় এগিয়ে আসি। এই নির্দেশ বাস্তবায়নে সামনের দিনেও জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

হাসপাতালের আইসিইউতে বিনা মূল্যে মনিটর ও মাস্ক দিলেন সুলতান আহমেদ মৃধা

প্রকাশিত: ১০:৫১:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১

মাসুদ রানা: করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা হাসপাতালের নতুন তৈরি আইসিইউতে মনিটর ও মাস্ক দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি, সাবেক উপজেলা ও পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ মৃধা।

শনিবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আব্দুল মতিনের কাছে তিনি পাঁচটি মনিটর ও আইসিইউতে ব্যবহারের ৫০ বাক্স হাইফ্লো অক্সিজেন মাস্ক হস্তান্তর করেন। এই আইসিইউ সামগ্রী ব্যক্তিগত তহবিল থেকে বিতরণ করেছেন তিনি।
চিকিৎসা সামগ্রী হস্তান্তর অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, ‘সরকারের পাশাপাশি সংকট মোকাবিলায় স্বাস্থ্য বিভাগের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য বেসরকারি ও ব্যক্তি উদ্যোগে সহযোগিতা করায় সুলতান আহমেদ মৃধাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ তিনি সমাজের বিত্তবানদের করোনা রোগীদের চিকিৎসা সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন জাহাঙ্গীর আলম শিপন, সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক লোকমান হাকিম, পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ।
এর আগেও সুলতান আহমেদ মৃধা করোনা রোগীদের চিকিৎসায় ব্যক্তি উদ্যোগে দুমকি ও মির্জাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তিনটি ভেন্টিলেটর, চারটি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, পিপিই, গ্লাভস, ক্যাপ, ডিজিটাল থার্মোমিটারসহ সিলিন্ডার বেসড সেন্ট্রাল অক্সিজেন প্ল্যান্ট স্থাপন করেছেন।
এর আগে গত ৬ মে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের স্বেচ্ছা রক্তদাতা সংগঠন সন্ধানী ইউনিটের কাজকে আরও বেগবান করার জন্য একটি ফ্রিজ দিয়েছেন তিনি। এছাড়া করোনা মহামারি শুরুর পর থেকেই নিয়মিত অসহায়-দুস্থ মানুষের মাঝে খাদ্য ও ঈদসামগ্রী বিতরণ করে আসছেন এই সমাজসেবক।
এসব সামাজিক কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে চাইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহমেদ মৃধা বলেন, করোনা মহামারি শুরুর পর আমার মনে খুব তাগাদা অনুভব করি যে মানুষকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবেই আমি এই কাজে এগিয়ে এসেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন আমরা যেন যার যার জায়গা থেকে করোনা মহামারি মোকাবেলায় এগিয়ে আসি। এই নির্দেশ বাস্তবায়নে সামনের দিনেও জরুরি চিকিৎসা সামগ্রী ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।