ঢাকা ১০:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সরকারি চাকরিপ্রার্থীদের বয়স ছাড়ের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ০৩:০৭:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ অগাস্ট ২০২১
  • 30

সরকারি চাকরি প্রার্থীদের বয়সে ছাড় দিচ্ছে সরকার

করোনার কারণে সরকারি চাকরিতে আবেদন করার বয়সসীমা যাদের শেষ হয়ে গেছে বা শেষ যাচ্ছে তাদের জন্য ২১ মাস ছাড় দিচ্ছে সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, ২০২০ সালের ২৫ মার্চ পর্যন্ত যাদের বয়স ৩০ ছিল, তাদের এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দেয়া হচ্ছে। অর্থাৎ ২১ মাসের ছাড় পাচ্ছেন তারা।

তিনি বলেন, আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত ২১ মাসের বিশেষ ছাড়ের প্রস্তাব রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে সেটি পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বিষয়টি চূড়ান্ত হয়ে এলে সরকারের সিদ্ধান্তটি কার্যকর করা হবে।

গেল বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। পরে ২৫ মার্চ থেকে টানা ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটি ছিল। গত এপ্রিল থেকে আবার সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় নানা পর্যায়ে বিধি-নিষেধ জারি করা হয়। সর্বশেষ বিধিনিষেধের মেয়াদ শেষ হয়েছে ১০ আগস্ট।

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

সরকারি চাকরিপ্রার্থীদের বয়স ছাড়ের প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে

প্রকাশিত: ০৩:০৭:৪০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ অগাস্ট ২০২১

করোনার কারণে সরকারি চাকরিতে আবেদন করার বয়সসীমা যাদের শেষ হয়ে গেছে বা শেষ যাচ্ছে তাদের জন্য ২১ মাস ছাড় দিচ্ছে সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাবনা প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানান, ২০২০ সালের ২৫ মার্চ পর্যন্ত যাদের বয়স ৩০ ছিল, তাদের এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দেয়া হচ্ছে। অর্থাৎ ২১ মাসের ছাড় পাচ্ছেন তারা।

তিনি বলেন, আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত ২১ মাসের বিশেষ ছাড়ের প্রস্তাব রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে সেটি পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে বিষয়টি চূড়ান্ত হয়ে এলে সরকারের সিদ্ধান্তটি কার্যকর করা হবে।

গেল বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। পরে ২৫ মার্চ থেকে টানা ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটি ছিল। গত এপ্রিল থেকে আবার সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি ঘটায় নানা পর্যায়ে বিধি-নিষেধ জারি করা হয়। সর্বশেষ বিধিনিষেধের মেয়াদ শেষ হয়েছে ১০ আগস্ট।