ঢাকা ০৯:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি মির্জা ফখরুলের

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ০৫:৩৮:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অগাস্ট ২০২১
  • 23

বিএনপির গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজও এখানে আসার সময় আমি শুনেছি—২৫ জনের মতো নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মীসহ প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়ে, জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, গত পরশু ও আজকের গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, একটি বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে জিয়াউর রহমান স্বেচ্ছাসেবক দল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কিন্তু, এত বছর পর এসেও তারা মুক্ত পরিবেশে কাজ করতে পারছে না।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ১৯৭১ সালে আমরা অনেক আশা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলাম। সাংবাদিকেরা নির্ভয়ে লিখতে পারবে, একটি গণতান্ত্রিক দেশ প্রতিষ্ঠিত হবে, গণতান্ত্রিক চিন্তাধারায় দেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে, মানুষ নির্ভয়ে কথা বলতে পারবে। কিন্তু, সে পরিস্থিতি এখন আর নেই। বাংলাদেশ এখন একটি ফ্যাসিস্ট সরকারের যাঁতাকলে পড়ে সম্পূর্ণরূপে কর্তৃত্ববাদী শাসনের কবলে পড়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর শরাফত আলি সফু, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল প্রমুখ।

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি মির্জা ফখরুলের

প্রকাশিত: ০৫:৩৮:২৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অগাস্ট ২০২১

বিএনপির গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবি করে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজও এখানে আসার সময় আমি শুনেছি—২৫ জনের মতো নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মীসহ প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়ে, জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, গত পরশু ও আজকের গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, একটি বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে জিয়াউর রহমান স্বেচ্ছাসেবক দল প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কিন্তু, এত বছর পর এসেও তারা মুক্ত পরিবেশে কাজ করতে পারছে না।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ১৯৭১ সালে আমরা অনেক আশা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলাম। সাংবাদিকেরা নির্ভয়ে লিখতে পারবে, একটি গণতান্ত্রিক দেশ প্রতিষ্ঠিত হবে, গণতান্ত্রিক চিন্তাধারায় দেশে গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে, মানুষ নির্ভয়ে কথা বলতে পারবে। কিন্তু, সে পরিস্থিতি এখন আর নেই। বাংলাদেশ এখন একটি ফ্যাসিস্ট সরকারের যাঁতাকলে পড়ে সম্পূর্ণরূপে কর্তৃত্ববাদী শাসনের কবলে পড়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর শরাফত আলি সফু, স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল প্রমুখ।