ঢাকা ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পুলিশ সদস্যের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ০৯:০১:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১
  • 42

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রানা মিয়া নামে এক পুলিশ সদস্য প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন করছেন এক তরুণী।রানা মিয়া উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের খালিজুরী গ্রামের মো. মজলু মিয়ার ছেলে। সে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরী করে বলে জানা গেছে। শনিবার (২৮ আগস্ট) ভোররাত রাত থেকে অচিন্তপুর ইউনিয়নের খালিজুরী গ্রামের রানা মিয়ার বাড়িতে অনশন শুরু করেন তরুণী। রবিবার (২৯ আগস্ট) রাত ১২ টা পর্যন্ত ওই তরুণী পুলিশ সদস্য রানা মিয়ার বাড়িতে অনশনে আছেন।

স্থানীয়রা জানায়, সম্প্রতি রানা মিয়া বিয়ে করবেন বলে ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসেন। তবে, রানা তার চাচাতো বোনকে বিয়ে করবে জানতে পেরে শনিবার দ্বিবাগত ৩ টার দিকে নিজের বাড়ি ছেড়ে প্রেমিক রানার বাড়িতে এসে অবস্থান নেয় ওই তরুণী। এরপর থেকে রানা পলাতক রয়েছেন। অনশনে থাকা তরুণী  বলেন, গত ৩ বছর যাবত রানার সাথে প্রেমের সম্পর্ক। এমনকি সে আমার সাথে একাধিকবার শারিরীক সম্পর্কে মিলিত হয়েছেন। আমার সবকিছু শেষ করেছে রানা, আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো।

ওই তরুণী আরও বলেন, গতকাল থেকে রানার পরিবারের লোকজন আমাকে খাবার জন্য এক গ্লাস পানিও দেয়নি। এমনকি আমি যে ঘরে বসে আছি। সেই ঘরের বৈদ্যুতিক লাইন কেটে দিয়েছেন। এ বিষয়ে পুলিশ সদস্য রানার মোবাইলে একাধিকবার ফোন করলেও সেটি বন্ধ দেখায়।এ বিষয়ে গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান আব্দুল হালিম সিদ্দীকী বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে, এ বিষয়ে এখনো কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

পুলিশ সদস্যের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন

প্রকাশিত: ০৯:০১:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩০ অগাস্ট ২০২১

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে রানা মিয়া নামে এক পুলিশ সদস্য প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন করছেন এক তরুণী।রানা মিয়া উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের খালিজুরী গ্রামের মো. মজলু মিয়ার ছেলে। সে পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরী করে বলে জানা গেছে। শনিবার (২৮ আগস্ট) ভোররাত রাত থেকে অচিন্তপুর ইউনিয়নের খালিজুরী গ্রামের রানা মিয়ার বাড়িতে অনশন শুরু করেন তরুণী। রবিবার (২৯ আগস্ট) রাত ১২ টা পর্যন্ত ওই তরুণী পুলিশ সদস্য রানা মিয়ার বাড়িতে অনশনে আছেন।

স্থানীয়রা জানায়, সম্প্রতি রানা মিয়া বিয়ে করবেন বলে ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসেন। তবে, রানা তার চাচাতো বোনকে বিয়ে করবে জানতে পেরে শনিবার দ্বিবাগত ৩ টার দিকে নিজের বাড়ি ছেড়ে প্রেমিক রানার বাড়িতে এসে অবস্থান নেয় ওই তরুণী। এরপর থেকে রানা পলাতক রয়েছেন। অনশনে থাকা তরুণী  বলেন, গত ৩ বছর যাবত রানার সাথে প্রেমের সম্পর্ক। এমনকি সে আমার সাথে একাধিকবার শারিরীক সম্পর্কে মিলিত হয়েছেন। আমার সবকিছু শেষ করেছে রানা, আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো।

ওই তরুণী আরও বলেন, গতকাল থেকে রানার পরিবারের লোকজন আমাকে খাবার জন্য এক গ্লাস পানিও দেয়নি। এমনকি আমি যে ঘরে বসে আছি। সেই ঘরের বৈদ্যুতিক লাইন কেটে দিয়েছেন। এ বিষয়ে পুলিশ সদস্য রানার মোবাইলে একাধিকবার ফোন করলেও সেটি বন্ধ দেখায়।এ বিষয়ে গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান আব্দুল হালিম সিদ্দীকী বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে, এ বিষয়ে এখনো কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।