ঢাকা ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ে বাড়িতে গান বন্ধ না করায় গুলিতে নিহত ৩

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ১২:৪৪:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২১
  • 60

আন্তর্জাতিক ডেস্ক |

আফগানিস্তানে নানগারহর প্রদেশে একটি বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানে গান বন্ধ না করায় গুলিতে অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। দুই হামলাকারী নিজেদের তালেবানের সদস্য দাবি করলেও বিষয়টি অস্বীকার করেছে নতুন আফগান সরকার।

তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ শনিবার বলেন, হামলাকারী তিনজনের মধ্যে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা তালেবান সদস্য নয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এই মুখপাত্র বলেন, নানগারহর প্রদেশের একটি গ্রামে তিন ব্যক্তি তালেবানের পরিচয় দিয়ে প্রবেশ করেন এবং গান বন্ধ করার নির্দেশ দেন। এরপর গুলিতে তিনজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হন।

আটক দুজনকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। অপর হামলাকারীকেও ধরার চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

তালেবানের এই মুখপাত্র আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে যাদের আটক করা হয়েছে, যারা ইসলামিক আমিরাতের পরিচয় দিয়েছে নিজেদের উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য, তাদেরকে শরিয়াহ আইন অনুযায়ী বিচারের জন্য হস্তান্তর করা হবে।

তালেবান সরকারের নানগারহর প্রদেশের মুখপাত্র কাজী মোল্লাহ আদেল হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বিস্তারিত কিছু জানাননি।

ভুক্তভোগী পরিবারের এক সদস্য বলেন, যখন গান বাজনা চলছিল ঠিক তখনই তালেবান যোদ্ধারা গুলি করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক তরুণ একটি আলাদা রুমে গান বাজানোর সময় তালেবানের তিনজন প্রবেশ করেন এবং গুলি করা শুরু করেন। আহত দুজনের অবস্থাও গুরুতর বলে জানান তারা।

তালেবানের আগের শাসনকালেও দেশটিতে গান বাজনা নিষিদ্ধ ছিল। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালে কড়াকড়ি নিয়ম জারির পর কেউ তা অমান্য করলে তাকে শরিয়াহ আইন অনুযায়ী বিচারের মুখোমুখি করতো তালেবান সরকার।

সূত্র: দ্যা গার্ডিয়ান

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

বিয়ে বাড়িতে গান বন্ধ না করায় গুলিতে নিহত ৩

প্রকাশিত: ১২:৪৪:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক |

আফগানিস্তানে নানগারহর প্রদেশে একটি বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানে গান বন্ধ না করায় গুলিতে অন্তত তিনজন নিহত হয়েছেন। দুই হামলাকারী নিজেদের তালেবানের সদস্য দাবি করলেও বিষয়টি অস্বীকার করেছে নতুন আফগান সরকার।

তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ শনিবার বলেন, হামলাকারী তিনজনের মধ্যে দুজনকে আটক করা হয়েছে। তারা তালেবান সদস্য নয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এই মুখপাত্র বলেন, নানগারহর প্রদেশের একটি গ্রামে তিন ব্যক্তি তালেবানের পরিচয় দিয়ে প্রবেশ করেন এবং গান বন্ধ করার নির্দেশ দেন। এরপর গুলিতে তিনজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হন।

আটক দুজনকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। অপর হামলাকারীকেও ধরার চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

তালেবানের এই মুখপাত্র আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে যাদের আটক করা হয়েছে, যারা ইসলামিক আমিরাতের পরিচয় দিয়েছে নিজেদের উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য, তাদেরকে শরিয়াহ আইন অনুযায়ী বিচারের জন্য হস্তান্তর করা হবে।

তালেবান সরকারের নানগারহর প্রদেশের মুখপাত্র কাজী মোল্লাহ আদেল হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও বিস্তারিত কিছু জানাননি।

ভুক্তভোগী পরিবারের এক সদস্য বলেন, যখন গান বাজনা চলছিল ঠিক তখনই তালেবান যোদ্ধারা গুলি করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক তরুণ একটি আলাদা রুমে গান বাজানোর সময় তালেবানের তিনজন প্রবেশ করেন এবং গুলি করা শুরু করেন। আহত দুজনের অবস্থাও গুরুতর বলে জানান তারা।

তালেবানের আগের শাসনকালেও দেশটিতে গান বাজনা নিষিদ্ধ ছিল। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সালে কড়াকড়ি নিয়ম জারির পর কেউ তা অমান্য করলে তাকে শরিয়াহ আইন অনুযায়ী বিচারের মুখোমুখি করতো তালেবান সরকার।

সূত্র: দ্যা গার্ডিয়ান