ঢাকা ০৭:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোদিকে একহাত নিয়ে রাহুল গান্ধীর পাশে মমতা

তিক্ততা ভুলে লোকসভা থেকে বরখাস্ত রাহুল গান্ধীর পাশে দাঁড়ালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাহুলের পক্ষ নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ ঝেড়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তবে মমতা বা অভিষেক, কেউই রাহুলের নাম নেননি। জোড়া টুইটে নাম উল্লেখ না করলেও রাহুলের পাশেই দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী এবং দলের সাধারণ সম্পাদক। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মমতা টুইটে লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদির নতুন-ভারতে বিরোধী নেতারাই বিজেপির মূল নিশানা। অপরাধী নেতাদের বিজেপির মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে, আর বিরোধী নেতাদের বরখাস্ত করা হচ্ছে ভাষণ দেওয়ার জন্য!

এদিকে রাহুল গান্ধীর লোকসভার সদস্যপদ খারিজ করেছেন স্পিকার। আগামী ছয় বছর পর্যন্ত ভোটেও অংশ নিতে পারবেন না তিনি।

প্রসঙ্গত, গোয়া ভোটের সময় থেকে কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়। পরে তা তিক্ত থেকে তিক্ততর হয়েছে। কিন্তু লোকসভার স্পিকার রাহুলের সাংসদপদ খারিজ করতেই তিক্ততা ভুলে তার পাশে দাঁড়ালেন মমতা, অভিষেক। যেন মোদির বিরুদ্ধে একজোট হলো কংগ্রেস-তৃণমূল!

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

অনলাইন ডেস্ক

জনপ্রিয়

মোদিকে একহাত নিয়ে রাহুল গান্ধীর পাশে মমতা

প্রকাশিত: ০৫:০৩:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মার্চ ২০২৩

তিক্ততা ভুলে লোকসভা থেকে বরখাস্ত রাহুল গান্ধীর পাশে দাঁড়ালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাহুলের পক্ষ নিয়ে টুইটারে ক্ষোভ ঝেড়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তবে মমতা বা অভিষেক, কেউই রাহুলের নাম নেননি। জোড়া টুইটে নাম উল্লেখ না করলেও রাহুলের পাশেই দাঁড়িয়েছেন তৃণমূল নেত্রী এবং দলের সাধারণ সম্পাদক। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মমতা টুইটে লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদির নতুন-ভারতে বিরোধী নেতারাই বিজেপির মূল নিশানা। অপরাধী নেতাদের বিজেপির মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে, আর বিরোধী নেতাদের বরখাস্ত করা হচ্ছে ভাষণ দেওয়ার জন্য!

এদিকে রাহুল গান্ধীর লোকসভার সদস্যপদ খারিজ করেছেন স্পিকার। আগামী ছয় বছর পর্যন্ত ভোটেও অংশ নিতে পারবেন না তিনি।

প্রসঙ্গত, গোয়া ভোটের সময় থেকে কংগ্রেসের সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়। পরে তা তিক্ত থেকে তিক্ততর হয়েছে। কিন্তু লোকসভার স্পিকার রাহুলের সাংসদপদ খারিজ করতেই তিক্ততা ভুলে তার পাশে দাঁড়ালেন মমতা, অভিষেক। যেন মোদির বিরুদ্ধে একজোট হলো কংগ্রেস-তৃণমূল!