মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১:৫১ অপরাহ্ন

মুক্তি

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৫ মে, ২০২১

—মুক্তি—
রশ্মিতা দাস

চারিদিকে রং, আবিরে পুষ্পে
বসন্ত পুলকিত,
কোকিলের কুহু,বৃক্ষের বাহু
রেণু-রঙে সজ্জিত.
আকাশের নীলে রঙিন খেয়ালে
চলে ভেসে সাদা তুলা,
ভেঙেছে যে মোর বছর ত্রিশের
কারাবাস. দোর খোলা…
কালঘুমে মোর শরশয্যার
চারিধারে শুধু রক্ত,
বুদ্ধি-চেতনা,কামনা-বাসনা
পাঁকেতে কর্দমাক্ত.
শিশুকাল গেল,কৈশোর এল
যৌবন নাড়ে কড়া,
ঘুমের ওষুধে অসাড় আঁধারে
জীবন হয়েছে সারা.
গিয়েছে বছর,দিয়ে গেছি “বলি”
নিঃশ্বাস গেছে বিকিয়ে,
চারিদিকে সুর,হাসি কলতান,
জমাট ঘা ছিল শুকিয়ে.
সারা দেহমনে করেছি বহন
ফাঁসির দড়িতে রেখে প্রাণ,
অস্হি-মজ্জা,ঘেন্না-লজ্জা
হয়েছে জবাই সম্মান.
ভুখা পেটে শুধু মরূভূমি ধূ ধূ
বন্ধ দু চোখ পিয়াসী,
ছন্দে,ভাষাতে,চিত্রে সুরেতে
হয়ে যেত শুধু প্রবাসী……
চাইত যে ছুঁতে জীবনের রং
বেঁচে থাকা,ওঠা পড়া,
গোলাপ ও কাঁটা,জোয়ার ও ভাঁটা
উত্তাল বারিধারা.
পারিনি যে ছুঁতে, শুধু দূর হতে
দেখে গেছি,শুনে গেছি
শুধু ছোঁয়া মানা.আবিরের ঝড়ে
এ কলতান রুখেছি.
আকাশ ডেকেছে,বাতাস ডেকেছে
ডেকেছে আম্রকুঞ্জ,
আমি শয্যায় বিকিয়ে জীবন
ঢেকেছি রক্তপুঞ্জ.
আজি মেলি আঁখি,জীবনকে দেখি
আবিরে-বাতাসে রাঙায়ে,
হাতে পায়ে খুলে গেল বেড়ি আজি
স্বর্গসুখেতে ভাসায়ে…………


এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ