ঢাকা ১২:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অঝোরে কাঁদলেন পাপন, বললেন ‘আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম’

  • Golam Faruk
  • প্রকাশিত: ০৫:০২:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ অগাস্ট ২০২১
  • 34

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত হন আইভি রহমান। এত নির্মমভাবে মাকে হারাবেন সেটি কল্পনাও করতে পারেননি তার বড় ছেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বনানীর কবরস্থানে মায়ের কবরে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে আজ (২৪ আগস্ট) সংবাদ সম্মেলনের মুখোমুখি হয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি। মাকে হারানোর ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

পাপন বলেন, আজ আমি কী পর্যায়ে এসে পৌছেছি, কিছুই মাকে জানাতে পারলাম না। সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগে আমি এত মানুষের চিকিৎসা করি। দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে ওষুধের সঙ্গে আছি। অথচ আমার আম্মার কোনো চিকিৎসাই করাতে পারলাম না। হামলায় আম্মা আহত হওয়ার পর একটা প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যাব কিংবা প্রাথমিক কোনো চিকিৎসা করাব তখন সেই সুযোগও পাচ্ছিলাম না। এর চেয়ে জঘন্য কাজ আমি চিন্তাই করতে পারিনা, যে মানুষের পক্ষে এটা কীভাবে সম্ভব।

বিশেষ দোয়ায় অংশগ্রহণ শেষে পাপন আরো বলেন, দেখুন এটা একটা বিশ্বাসের ব্যাপার। মনের মধ্যে এখনো এ বিশ্বাসটা আছে। বঙ্গবন্ধুকে হ’ত্যার পর অনেকে ভেবেছিল কোনোদিন এর বিচার হবে না। কিন্তু সময় লাগলেও বিচার তো হয়েছে। আসলে এ ধরণের অপরাধ যারা করে তাদের বিচার অবশ্যই হবে।

আল্লাহর উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার উপরে, উনি যখন বঙ্গবন্ধু হ’ত্যার বিচার করতে পেরেছেন। এখনো অনেককে দেশে আনতে পারেননি সেটি ভিন্ন কথা। কিন্তু বিচারটা করেছেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সকলকে বিচারের আওতায় আনা হবে। আর আমরা সকলেই জানি, বিচারের প্রক্রিয়া অনেক আগেই শুনেছি, এই প্রক্রিয়া এখন শেষ পর্যায়ে। আমার ধারণা খুব শিগগিরই আমরা এর রায়টা পেয়ে যাব।

সবশেষে নিজের ব্যক্তিগত জীবনে মাকে হারানোর ঘটনা কী রকম প্রভাব ফেলেছে এমন প্রশ্নে বিসিবি সভাপতি বলেন, শুধু আমার মা’ই নয়, ওই দিন শত শত লাশ পড়েছিল। সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগে। যখন টিভিতে তাদের দোসররা এখনো নানান ধরনের কথা বলে এবং মিথ্যাচার করে। আমি শুধু আল্লাহর কাছে বিচার চাই, তিনিই এর বিচার করবেন।

বিষয় :
প্রতিবেদক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য

Golam Faruk

জনপ্রিয়

অঝোরে কাঁদলেন পাপন, বললেন ‘আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম’

প্রকাশিত: ০৫:০২:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ অগাস্ট ২০২১

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত হন আইভি রহমান। এত নির্মমভাবে মাকে হারাবেন সেটি কল্পনাও করতে পারেননি তার বড় ছেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। বনানীর কবরস্থানে মায়ের কবরে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে আজ (২৪ আগস্ট) সংবাদ সম্মেলনের মুখোমুখি হয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি। মাকে হারানোর ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

পাপন বলেন, আজ আমি কী পর্যায়ে এসে পৌছেছি, কিছুই মাকে জানাতে পারলাম না। সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগে আমি এত মানুষের চিকিৎসা করি। দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে ওষুধের সঙ্গে আছি। অথচ আমার আম্মার কোনো চিকিৎসাই করাতে পারলাম না। হামলায় আম্মা আহত হওয়ার পর একটা প্রাইভেট ক্লিনিকে নিয়ে যাব কিংবা প্রাথমিক কোনো চিকিৎসা করাব তখন সেই সুযোগও পাচ্ছিলাম না। এর চেয়ে জঘন্য কাজ আমি চিন্তাই করতে পারিনা, যে মানুষের পক্ষে এটা কীভাবে সম্ভব।

বিশেষ দোয়ায় অংশগ্রহণ শেষে পাপন আরো বলেন, দেখুন এটা একটা বিশ্বাসের ব্যাপার। মনের মধ্যে এখনো এ বিশ্বাসটা আছে। বঙ্গবন্ধুকে হ’ত্যার পর অনেকে ভেবেছিল কোনোদিন এর বিচার হবে না। কিন্তু সময় লাগলেও বিচার তো হয়েছে। আসলে এ ধরণের অপরাধ যারা করে তাদের বিচার অবশ্যই হবে।

আল্লাহর উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার উপরে, উনি যখন বঙ্গবন্ধু হ’ত্যার বিচার করতে পেরেছেন। এখনো অনেককে দেশে আনতে পারেননি সেটি ভিন্ন কথা। কিন্তু বিচারটা করেছেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের সকলকে বিচারের আওতায় আনা হবে। আর আমরা সকলেই জানি, বিচারের প্রক্রিয়া অনেক আগেই শুনেছি, এই প্রক্রিয়া এখন শেষ পর্যায়ে। আমার ধারণা খুব শিগগিরই আমরা এর রায়টা পেয়ে যাব।

সবশেষে নিজের ব্যক্তিগত জীবনে মাকে হারানোর ঘটনা কী রকম প্রভাব ফেলেছে এমন প্রশ্নে বিসিবি সভাপতি বলেন, শুধু আমার মা’ই নয়, ওই দিন শত শত লাশ পড়েছিল। সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগে। যখন টিভিতে তাদের দোসররা এখনো নানান ধরনের কথা বলে এবং মিথ্যাচার করে। আমি শুধু আল্লাহর কাছে বিচার চাই, তিনিই এর বিচার করবেন।